কন্যাশ্রীর পর সবুজ সাথী, ফের বিশ্বমঞ্চে ‘সেরার সেরা’ হল রাজ্য সরকারের প্রকল্প

বিশ্বের দরবারে ফের বাংলার স্বীকৃতি। আন্তর্জাতিক স্তরে সেরার শিরোপা পেল রাজ্যের জনপরিষেবামূলক প্রকল্প ‘সবুজসাথী’। স্বীকৃতি পেল ‘উত্কর্ষ বাংলা’ প্রকল্পও।

‘কন্যাশ্রী’র পর এবার ‘সবুজসাথী’। বিশ্বসেরার পুরস্কার পেল রাজ্যের প্রকল্প। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নানা জনপরিষেবামূলক প্রকল্প নিয়ে প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল রাষ্ট্রপুঞ্জ অধীনস্থ সংস্থা World Summit on the Information and Society বা WSIS।

যেখানে অংশ নিয়েছিল ১৬২টি দেশের ১ হাজার ৬০০টি প্রকল্প। সেই প্রকল্পগুলির মধ্যে সেরার শিরোপা পেয়েছে ‘সবুজসাথী’। গত বছরই এই প্রতিযোগীতায় স্বীকৃতি পেয়েছিল এই প্রকল্প। পাশাপাশি, এবার স্বীকৃতি পেয়েছে ‘উত্কর্ষ বাংলা’ প্রকল্প।

রাজ্য সরকারের তরফে ভার্চুয়াল মাধ্যমে পুরস্কার গ্রহণ করেন অনগ্রসর শ্রেণি কল্যাণ দফতরের ওএসডি সঞ্জয় থাড়ে। এর আগে, ২০১৭ সালে বিশ্বের ৬৩টি দেশের ৫৫২টি জনপরিষেবামূলক প্রকল্পের মধ্যে, ‘কন্যাশ্রী’ প্রকল্প বিশ্বের দরবারে সেরা করেছে বাংলাকে। ছিনিয়ে নিয়েছে রাষ্ট্রপুঞ্জের ‘পাবলিক সার্ভিস অ্যাওয়ার্ড’।

এবার বিশ্বসেরা খেতাব ছিনিয়ে নিল ‘সবুজসাথী’। ২০১৫ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে রাজ্যে চালু হয় ‘সবুজসাথী’ প্রকল্প। এই প্রকল্পে স্কুল পড়ুয়াদের সাইকেল দেয় রাজ্য সরকার। সরকারি সূত্রের খবর, এখনও প্রর্যন্ত প্রায় ৮৪ লক্ষ পড়ুয়ার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে সাইকেল।

২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে সূচনা হয় উৎকর্ষ বাংলা প্রকল্পের। এই প্রকল্পে ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সি বেকার যুবক-যুবতীদের কারিগরি প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। স্বল্প সময়ের জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় নিখরচায়। যে-সব কাজের চাহিদা রয়েছে, একমাত্র সেগুলির প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় এই প্রকল্পে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares