Breaking News
Home / Others / কারোর দুর্বলতা নিয়ে কখনো হেসো না, নিজের দিকে তাকিয়ে দেখো দেখবে কোথাও না কোথাও তোমারও কিছু দুর্বলতা আছে’

কারোর দুর্বলতা নিয়ে কখনো হেসো না, নিজের দিকে তাকিয়ে দেখো দেখবে কোথাও না কোথাও তোমারও কিছু দুর্বলতা আছে’

প্রতিটি মানুষ জীবনে স্বাভাবিক ভাবে বাঁচতে চান। সকলেই চান এই সুন্দর পৃথিবীতে নিজের মনের মত করে বাঁচতে। কিন্তু অনেক সময় জীবনে এগিয়ে চলার পথে অনেক বাধা বি-প-ত্তি আছে। এমন পরিস্থিতির শি-কা-র মানুষকে হতে হয় যার দরুন জীবনে বেঁচে থাকার ইচ্ছেটাই তার হারিয়ে যায়।

কিন্তু তারপরেও অদম্য ইচ্ছাশক্তি নিয়ে জীবনে চলার পথে এগিয়ে যায় বহু পথিক। এরকমই জীবনে হার না মানা একজন পথিক হলেন শতরূপা সরকার।তিনি একজন মেকআপ আর্টিস্ট। তিনি ফেসবুকের মাধ্যমে কিছু কথা সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে শেয়ার করেছেন। তার জীবনটাই নানারকম চড়াই উতরাই তে পরিপূর্ণ।

দু-রা-রো-গ্য ব্যাধির শি-কা-র তিনি। তবুও তিনি সব কিছুকে তু-চ্ছ করে সমাজে মাথা উঁচু করে গ-র্বভরে দাঁড়াতে চান। দেখে নিন সোশ্যাল মিডিয়ায় কি বার্তা দিয়েছেন তিনি সকলের উদ্দেশ্যে-“কি অবাক হচ্ছেন? মানতে পারছেন না!অসুবিধা হচ্ছে চিনতে?

হ্যাঁ, এটাই আমি যার মাথায় চুল নেই, চোখের পাতা নেই, আইব্রো নেই গায়ের লোম নেই আমি সেই শতরূপা সরকার(24)। পাঁচ বছর বয়স থেকে অ্যালোপেসিয়ার শি-কা-র আমি যে কারণে আমার মাথার চুল ধীরে ধীরে শরীরের লোম চোখের পাতা আই ব্রো উঠে যায়….. অনেক হয়েছে! ছোটবেলা থেকে শুনতে শুনতে স্কুল, কলেজ, নিজের কাজের জায়গা, রাস্তাঘাটে, ট্রেনে, বাসে আমায় নিয়ে অনেক হেসেছেন।

নিজেকে সাজাবার জন্য পরচুলা ব্যবহার করি। তাতেও অনেক কিছুই মন্তব্য করেছেন। সবার সামনে মাথাটা ঢেকে রাখতে হবে কোনও আব-রণ দিয়ে কেন? আমি কি রক্তে মাংসে মানুষ না? আমারও তো অ-স্ব-স্তি বোধ হয়।সব সময় ভ-য়ে ভ-য়ে থাকতে হয়।

নিজেকে ফ্যামিলির কাছ থেকে, নিজের গ্রামের থেকে অনেক আগে সরিয়ে নিয়েছি নিজেকে। ভালো লাগতো না অ-স্ব-স্তিকর পরিবেশ, নিজেকে ভালো রাখার জন্য আগে নাচ করতাম, তাতেও বাজে কিছু মন্তব্য করেছেন আপনারাই।
তারপর ধীরে ধীরে প্রফে-শন পাল্টাতে হয়েছে সেটাও আপনাদেরই জন্য।কারন আপনাদের চোখে তো কোন প্রতিভারই দাম নেই। আপনারা তো ড্রেসআপ দেখেন,ফিগার দেখেন, রাত হয়ে গেলে নোং-রা মন্তব্য করেন। আজ কোথাও মেকআপ না শিখে যখন নিজে স্বনির্ভর হওয়ার চেষ্টা করেছি,

সেই সময়ও আমার আ-ত্ম বিশ্বাস ভা-ঙা-র অনেক চেষ্টা করেছেন। আমি কিন্তু একটুও ভে-ঙে পড়িনি, বরং আরো কিছু মানুষকে বাঁচার প্রেরণা দিতে চাই নিজেকে উদাহরণ দিয়ে নিজের অহংকার দিয়ে….. না না রূপের অহংকার নয়।

অহংকার আমার নিজের দুর্বলতা(আপনাদের কথায়) যেটা আমার কাছে শ-ক্তি, তাই এবার সময় এসেছে বদলাবার….আগে আমার সাথে অনেকেই কথা বলতো না রাস্তাঘাটে, এখন তারাই নিজে থেকে যখন কথা বলতে আসে সত্যি খুব ভালো লাগে।বুঝতে পারি চেহারাটা পরচুলা তে সুন্দর দেখায় তো তাই মানুষ বলে মনে হয়, তাই সবাই কথা বলে।আমার মতন বহু মানুষ আছে যারা আমার মতো হয়তো নিজেকে সরিয়ে রাখতে চেষ্টা করে সবার থেকে।

এটাই বলবো সবাইকে, কারোর দুর্ব-লতা নিয়ে হেসো না…. নিজের দিকে তাকিয়ে দেখো দেখবে কোথাও না কোথাও তোমারও কিছু দুর্ব-লতা আছে” এই কথাগুলি শেয়ার করেছেন কৃপা বসু তাঁর ফেসবুক ওয়ালে। প্রতিটি মানুষকে মর্মে মর্মে উপলব্ধি করতে হবে এই কথাগু-লি।

Sharing is caring!

About admin

Check Also

জিদ করে মোবাইল ব্যবহার করেননি,ম্যাজিস্ট্রেট হয়েই কিনলেন মোবাইল

রেজোয়ান ইফতেকার। ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজ থেকে অনার্স মাস্টার্স শেষ করেছেন। তবে কোনদিন প্রাইভেট কিংবা কোচিং ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares